নোয়াখালী আবদুল মালেক মেডিকেল কলেজকে আরটি-পিসিআর মেশিন দিলো নোবিপ্রবি

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২০

 আবু রায়হান সরকার,চীফ রিপোর্টার:

নোয়াখালী আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের কার্যক্রম চালু করার জন্য করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের কাজে ব্যবহৃত আরটি-পিসিআর মেশিন হস্তান্তর করেছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) কর্তৃপক্ষ।সোমবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে এই মেশিনটি নোয়াখালী আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

জানা যায়, মাননীয় সংসদ সদস্য জননেতা একরামুল করিম চৌধুরীর মৌখিক অনুরোধ, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজের চিঠির আলোকে মালেক উকিল মেডিকেল কলেজকে নোবিপ্রবির ফার্মেসি বিভাগের একটি আর টি পিসিআর মেশিনসহ আনুসাঙ্গিক যন্ত্রপাতি দেয়া হয়েছে। মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের অন্য পি সি আর মেশিনে নোবিপ্রবিতে করোনা পরীক্ষা হবে।

এ সময় মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান এবং স্বাচিপের সভাপতি ও কিডনি বিভাগের চেয়ারম্যান ডা. ফজলে এলাহি খাঁন, নোবিপ্রবি ফার্মেসি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জামি উদ্দিন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. দিদার-উল-আলম বলেন, আমাদের একটি পিসিআর আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেলে কলেজে হস্তান্তর করা হয়েছে। আর একটি পিসিআর বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুজীব বিজ্ঞান বিভাগে খুব শিগগিরই চালু করা হবে।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর বলেন, “নোবিপ্রবি করোনা পরীক্ষা চালুর ব্যাপারে পূর্বেও তৈরি ছিল এখনো প্রস্তুত। ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নির্দেশে কোষাধ্যক্ষ, নোয়াখালী জেলা প্রশাসক যিনি নোয়াখালীর করোনা সেলের প্রধান ও স্বাস্হ্য অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে আলোচনা করে নোবিপ্রবিতে করোনা পরীক্ষা যথাসম্ভব দ্রুত চালুর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

পরবর্তী সময়ে মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের চেয়ারম্যানসহ টেস্টিং কাজের সময় সর্বোচ্চ সতর্কতার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে নোবিপ্রবির মাইক্রোবায়োলজি ল্যাবটি দ্রুত লেবেল থ্রি সেইফটিতে রূপান্তর করে দ্রুত নোয়াখালীতে করোনা টেস্ট শুরু করা হবে।”